ই-শ্রম যোজনা: অনলাইন ও অফলাইনে আবেদন করার সম্পূর্ণ গাইড এবং যোগ্যতার শর্তাবলী

Whatsapp-Group-Link
krishak bandhu Join Whatsapp channel

কেন্দ্রীয় সরকারের ই-শ্রম যোজনা (E-Shram Yojana) অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্প। এই প্রকল্পের মাধ্যমে শ্রমিকরা পেনশন, বীমা, এবং আর্থিক সহায়তার মতো বিভিন্ন সুবিধা পান। আজ আমরা জানবো কিভাবে ই-শ্রম কার্ডের জন্য অনলাইন ও অফলাইনে আবেদন করা যায় এবং এর যোগ্যতা কী কী।

ই-শ্রম যোজনার যোগ্যতা

ই-শ্রম যোজনার আওতায় আবেদন করতে হলে নিম্নলিখিত যোগ্যতাগুলি থাকতে হবে:

  1. বয়স: ১৬ থেকে ৫৯ বছর বয়সী সমস্ত অসংগঠিত শ্রমিকেরা আবেদন করতে পারবেন।
  2. আয়কর ও অন্যান্য সুবিধা: যারা আয়কর দেন না এবং EPFO বা ESIC এর জন্য নথিভুক্ত নন, তারাই এই সুবিধার জন্য যোগ্য।

আরো পড়ুন: জন ধন যোজনা 2024: ১০,০০০ টাকা এবং ১.৩০ লক্ষ টাকার বীমা সহ অসাধারণ সুযোগ!

প্রয়োজনীয় Documents

ই-শ্রম যোজনার জন্য আবেদন করতে গেলে নিম্নলিখিত Documents গুলি প্রয়োজন হবে:

  1. আধার কার্ড
  2. আয়ের শংসাপত্র
  3. ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট পাসবুক
  4. মোবাইল নম্বর

অনলাইনে ই-শ্রম কার্ডের জন্য আবেদন

অনলাইনে ই-শ্রম কার্ডের জন্য আবেদন করার প্রক্রিয়া খুব সহজ:

  1. ওয়েবসাইটে যান: প্রথমে ই-শ্রম যোজনার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট https://register.eshram.gov.in/#/user/self এ যান।
  2. রেজিস্ট্রেশন করুন: মোবাইল নম্বর দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করুন এবং OTP দিয়ে প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ করুন।
  3. তথ্য পূরণ করুন: নাম, ঠিকানা, শিক্ষাগত যোগ্যতা, এবং কর্মক্ষেত্র সংক্রান্ত তথ্য প্রদান করুন।
  4. ব্যাঙ্কের তথ্য দিন: ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের তথ্য প্রদান করুন এবং সাবমিট করুন।
  5. কার্ড ডাউনলোড করুন: সব তথ্য যাচাই করার পর ই-শ্রম কার্ডটি ডাউনলোড করুন।

অফলাইনে ই-শ্রম কার্ডের জন্য আবেদন

যদি আপনি অনলাইনে আবেদন করতে না পারেন, তাহলে নিকটস্থ Common Service Center (CSC) গিয়েও আবেদন করতে পারেন:

  1. CSC এ যান: নিকটস্থ CSC কেন্দ্র খুঁজে বের করুন এবং সেখানে যান।
  2. আবেদন ফর্ম পূরণ করুন: CSC কর্মী থেকে ই-শ্রম কার্ডের আবেদন ফর্ম নিন এবং সেটি সঠিকভাবে পূরণ করুন।
  3. Documents জমা দিন: প্রয়োজনীয় Documents গুলি (আধার কার্ড, আয়ের শংসাপত্র, ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট পাসবুক) CSC কর্মীর কাছে জমা দিন।
  4. কার্ড প্রাপ্তি: সমস্ত প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর CSC থেকে ই-শ্রম কার্ডটি সংগ্রহ করুন।

আরো পড়ুন: প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা ২০২৪: ঘর তৈরি করার ভর্তুকি কত পাবেন দেখুন

ই-শ্রম কার্ডের সুবিধা

ই-শ্রম কার্ডের মাধ্যমে আপনি পাবেন:

  1. পেনশন: ৬০ বছর বয়সের পর নিয়মিত পেনশন পাবেন।
  2. বীমা: দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে ২ লাখ টাকা এবং শারীরিকভাবে অক্ষম হলে ১ লাখ টাকা।
  3. আর্থিক সহায়তা: মাসে ৫০০ থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত আর্থিক সহায়তা পাওয়া যাবে।
  4. রেশন ও অন্যান্য সুবিধা: রেশন কার্ডের সাথে লিঙ্ক করা থাকলে অন্যান্য রাজ্যেও এই সুবিধা পাওয়া যাবে।

ই-শ্রম যোজনা শ্রমিকদের জন্য একটি অসাধারণ সুযোগ। এখনই আবেদন করুন এবং এই সুবিধাগুলি উপভোগ করুন।

Leave a Comment