স্বাস্থ্য সাথী কার্ডে বড় পরিবর্তন: ১০ দিনের নতুন নিয়ম জানুন

Whatsapp-Group-Link
krishak bandhu Join Whatsapp channel

পশ্চিমবঙ্গের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার স্বাস্থ্য সাথী কার্ডে একটি বড় পরিবর্তন এনেছে। এই নতুন নিয়মাবলীর মাধ্যমে সরকার স্বাস্থ্য সেবার অপব্যবহার রোধ করার এবং সরকারি অর্থের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করার উদ্যোগ নিয়েছে।

রাজ্য সরকার এই প্রকল্পে টাকা দেওয়ার ক্ষেত্রে একটি অডিট করার প্রস্তুতি নিচ্ছে এবং বেশ কিছু শর্ত মেনে চলার নির্দেশনা দিয়েছে।

অপ্রয়োজনীয় খরচ বন্ধে কড়া পদক্ষেপ

স্বাস্থ্য বিভাগের সূত্রে জানা গেছে, কিছু বেসরকারি হাসপাতাল সাধারণ জ্বর, সর্দি-কাশির মতো তুচ্ছ সমস্যার জন্য রোগীদের হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে দীর্ঘ সময় ধরে হাসপাতালে রাখছে, যার ফলে বিল বেড়ে যাচ্ছে।

অনেক সময়ে রোগীর প্রয়োজন না থাকলেও বিভিন্ন খরচ বিলের অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। স্বাস্থ্য দফতরের মতে, কিছু বেসরকারি হাসপাতাল বেশি টাকা কামানোর জন্য এমনটা করছে। এই ধরনের অপব্যবহার বন্ধ করতেই এই কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে।

নতুন নিয়মাবলী ও নির্দেশিকা

রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর রোগী ও হাসপাতালের জন্য কঠোর নিয়ম সংক্রান্ত নতুন নির্দেশিকা জারি করেছে। বলা হয়েছে যে, আপনি যদি ১০ দিনের বেশি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি থাকেন তবে একটি মেডিকেল অডিট করা হবে। সেই অডিট দেখার পর রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নেবে টাকার পরিমাণ বাড়ানো হবে কি না।

শুধু তাই নয়, অপারেশন ও গাইনোকোলজিক্যাল সার্জারির ক্ষেত্রেও নিয়ম পরিবর্তন করা হচ্ছে। নতুন নির্দেশিকা অনুযায়ী, রোগী যে অপারেশনের জন্য ভর্তি হয়েছেন, তা ছাড়া অন্য কোনও অস্ত্রোপচারের জন্য টাকা পাবেন না তিনি।

যদি রোগীর অন্য কোনও চিকিৎসা অবস্থা পাওয়া যায় বা ভর্তির পর অপারেশনেরও প্রয়োজন হয়, তাহলেও অতিরিক্ত অর্থ পাওয়া যাবে না। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ টাকা দাবি করলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সরকার নিজেই।

মেডিকেল অডিট টিমের ভূমিকা

কোনও রোগীকে ১০ দিনের বেশি হাসপাতালে রাখা হলে মেডিকেল অডিট টিমের সিদ্ধান্তের পরই সরকারি টাকায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তা চালিয়ে যেতে পারবে। চিকিৎসকদেরই একটি দল এই অডিট করবে। স্বাস্থ্য অধিদফতরের অনুমতি ছাড়া কোনো ব্যক্তি কে  হাসপাতালে রাখা হলে সংশ্লিষ্ট হাসপাতাল ও চিকিৎসককেও সমান ভাবে জরিমানা করা হবে।

বর্তমান পরিস্থিতি ও নতুন পদক্ষেপ

নতুন নিয়মাবলী চালু হওয়ার পর থেকে রাজ্যের অনেক বেসরকারি হাসপাতাল এবং রোগী এ নিয়ে উদ্বিগ্ন। রোগীদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা পাওয়ার নিশ্চয়তা দেওয়ার পাশাপাশি, সরকার হাসপাতালগুলিকে সঠিক পথে পরিচালিত করার উদ্যোগ নিয়েছে।

নতুন নিয়মাবলী অনুযায়ী, সমস্ত বেসরকারি হাসপাতালকে রোগীর প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান করতে হবে এবং অপ্রয়োজনীয় খরচ থেকে বিরত থাকতে হবে।

উপসংহার

স্বাস্থ্য সাথী কার্ডের নতুন নিয়মাবলী রাজ্যের সাধারণ মানুষের জন্য একটি বড় পরিবর্তন এবং সুবিধা নিয়ে এসেছে। নতুন নিয়মাবলীর মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবার অপব্যবহার রোধ করা এবং সরকারি অর্থের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করা হচ্ছে।

মমতা সরকারের এই কড়া পদক্ষেপ রাজ্যের স্বাস্থ্য সেবায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা আনবে এবং সাধারণ মানুষের জন্য আরও ভালো সেবা নিশ্চিত করবে।

Leave a Comment