কৃষি যন্ত্রপাতি কেনার সুযোগ: ভর্তুকি পাওয়া যাবে সর্বাধিক ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত, কিভাবে আবেদন করবেন

Whatsapp-Group-Link
krishak bandhu Join Whatsapp channel

ভর্তুকি পাওয়া যাবে, সর্বাধিক ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত, ভারতবর্ষের অর্থনীতি অনেকাংশেই কৃষির উপর নির্ভরশীল। তবে দুঃখজনক হলেও সত্য, আমাদের দেশের বেশিরভাগ কৃষক এখনও অর্থনৈতিক দিক থেকে পিছিয়ে রয়েছেন।

উন্নত মানের কৃষি যন্ত্রপাতি কেনা থেকে শুরু করে কৃষির মানোন্নয়নে প্রয়োজনীয় অর্থ ব্যয় করা তাদের পক্ষে কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই সমস্যা সমাধানে পশ্চিমবঙ্গ সরকার এগিয়ে এসেছে, কৃষকদের আর্থিক সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে।

আরো পড়ুন: বিশ্বকর্মা যোজনা প্রকল্পে কত টাকা দিচ্ছেন? এই প্রকল্পে আবেদন করলে কত টাকা পাবেন?

কি সুবিধা পাওয়া যাবে?

পশ্চিমবঙ্গ সরকারের কৃষি দপ্তরের উদ্যোগে সরাসরি সরকারি ভর্তুকিতে উন্নত মানের কৃষি যন্ত্রপাতি কেনার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। ২০২৪-২৫ অর্থবর্ষের ভিত্তিতে এই প্রকল্পের বিজ্ঞপ্তি ইতিমধ্যেই সরকারি পোর্টালে প্রকাশিত হয়েছে। এই প্রকল্পের অধীনে মোট ৪টি উদ্যোগের মাধ্যমে কৃষকদের কৃষি যন্ত্রপাতি সরবরাহ করা হবে।

  • ছোট কৃষি যন্ত্রপাতি: কেনার ক্ষেত্রে দামের ৫০% ভর্তুকি পাওয়া যাবে, সর্বাধিক ১০,০০০ টাকা।
  • শক্তিচালিত যন্ত্রপাতি: ৫০-৬০% ভর্তুকি পাওয়া যাবে, সর্বাধিক ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত।
  • কৃষি যন্ত্রপাতি ভাড়া কেন্দ্র: স্থাপনের জন্য প্রয়োজনীয় প্রজেক্ট মূল্যের ৪০% ভর্তুকি। ন্যূনতম প্রজেক্ট মূল্য ২০ লক্ষ টাকা
  • কৃষি যন্ত্রপাতির হাব: স্থাপনের জন্য ৮০% ভর্তুকি, সর্বাধিক ১০ লক্ষ টাকা

আরো পড়ুন: যোগ্যশ্রী প্রকল্পে নতুন চমক: এই সুবিধা থেকে বঞ্চিত হবেন না!

আবেদন প্রক্রিয়া ও প্রয়োজনীয় Documents 

সরকারি ভর্তুকির মাধ্যমে কৃষি যন্ত্রপাতি কেনার জন্য আবেদন প্রক্রিয়া সম্পূর্ণ অনলাইনের মাধ্যমে করা যাবে। এর জন্য প্রয়োজন হবে কয়েকটি গুরুত্বপূর্ন Documents:

  1. আবেদনকারীর আধার কার্ড
  2. ভোটার কার্ড
  3. ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ডিটেলস
  4. এক কপি ছবি
  5. অনলাইন আবেদনের প্রিন্ট কপি

লাখপতি দিদি যোজনা ২০২৪: মহিলাদের জন্য ৫ লক্ষ টাকা বিনা সুদে ঋণ, আজই আবেদন করুন

অনলাইন আবেদনের পর এই সমস্ত Documents গুলি কৃষি দপ্তরের অফিসে গিয়ে জমা করতে হবে। কৃষি দপ্তর থেকে সমস্ত Document যাচাই করার পর আবেদন গ্রাহ্য হলে সরাসরি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ভর্তুকির টাকা জমা হবে।কবে থেকে এই প্রকল্প কার্যকর হবে?

সরকারি কৃষি দপ্তরের দেওয়া গাইডলাইন অনুসারে, এই প্রকল্পটি ১ এপ্রিল ২০২৪ থেকে কার্যকর হয়েছে। অর্থাৎ ইতিমধ্যেই এই প্রকল্পের মাধ্যমে সুবিধা প্রদান শুরু হয়ে গেছে। যারা এখনও আবেদন করেননি, তাদের জন্য এটি সুবর্ণ সুযোগ। উন্নত মানের কৃষি যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে কৃষির মানোন্নয়ন ঘটান এবং নিজেকে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করে তুলুন।

আরও কিছু তথ্য

এই প্রকল্পের অধীনে রাজ্যের ১১০০টি কৃষি যন্ত্রপাতি ভাড়া দেওয়ার কেন্দ্র (কাস্টম হায়ারিং সেন্টার) খোলা হবে। এছাড়াও ফর্ম মেশিনারি ভর্তুকির ব্যবস্থা থাকবে। সরকারের এই পদক্ষেপের ফলে রাজ্যের কৃষিক্ষেত্রে এক নতুন দিগন্তের সূচনা হবে এবং কৃষকদের জীবনযাত্রার মান উন্নত হবে।

এই সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করবেন না। দ্রুত আবেদন করুন এবং উন্নত মানের কৃষি যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে আপনার কৃষিক্ষেত্রকে উন্নত করুন।

আরো পড়ুন: স্বামী বিবেকানন্দ স্কলারশিপে প্রথম টাকা পাবে কারা? দেখে নিন এখুনি!

8 thoughts on “কৃষি যন্ত্রপাতি কেনার সুযোগ: ভর্তুকি পাওয়া যাবে সর্বাধিক ৩ লক্ষ টাকা পর্যন্ত, কিভাবে আবেদন করবেন”

  1. I am a cultivator.
    I live in Under Mongalkote block Burdwan District.vill…unia.under Paligram Gram panchayet.
    Now I wants some krishi machinery
    Such as…paddy jharai
    Honda small pump set

    Reply

Leave a Comment