জয় বাংলা পেনশন স্কিম 2024 আবেদনপত্র, স্ট্যাটাস চেক, Jai Bangla Pension Scheme Status Check

Whatsapp-Group-Link

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের সমস্ত দরিদ্র লোকদের সাহায্য করার জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী জয় বাংলা পেনশন স্কিম চালু করেছেন, এই Jai Bangla Pension Scheme প্রকল্পে Status Check কিভাবে করবেন আজ এই আর্টিকেলে এই প্রকল্পের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বৈশিষ্ট্য এবং সুবিধাগুলি নিয়ে আলোচনা করব।

এই আর্টিকেলে জয় বাংলা স্কিম এ আবেদন করার প্রক্রিয়া ধাপে ধাপে সুন্দর করে লেখা হয়েছে যাতে আপনাদের আবেদন করতে কোনো সমস্যা না হয়।এই আর্টিকেলে এই স্কিমের জন্য গুরুত্বপূর্ণ তারিখগুলিও দেয়া হয়েছে, এছাড়াও এই স্কিম এ আবেদন করার জন্য যোগ্যতার মানদণ্ড এবং প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস কি কি লাগবে সে ব্যাপারে তথ্য  দেওয়ার চেষ্টা করেছি। 

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন স্কিম 2024

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন স্কিমটি পর্যায়ক্রমে চালু করা হয়েছে। এটি  দুটি পর্যায় পৃথকভাবে আমাদের সমাজের সামাজিকভাবে পিছিয়ে পড়া তফসিলি জাতি এবং তফসিলি উপজাতি শ্রেণীকে উপকৃত করবে যা। তফসিলি জাতি বিভাগের জন্য যে প্রকল্পটি চালু করা হয়েছিল তা তফসিলি  বন্ধু পেনশন স্কিম নামে পরিচিত।

তফসিলি উপজাতি বিভাগের জন্য যে প্রকল্পটি চালু করা হয়েছে তা জয় জোহর প্রকল্প নামে পরিচিত। এই দুটি স্কিমই সমাজের বিভিন্ন জাতি ও শ্রেণীকে উপকৃত করবে।

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন প্রকল্পের বিশদ বিবরণ

বৈশিষ্ট্যতথ্য
প্রোগ্রামের নামপশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন
উদ্বোধন করেছেনপশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী
সুবিধাভোগীপশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বাসিন্দারা
উদ্দেশ্যপেনশন প্রদান করা
অফিসিয়াল ওয়েবসাইটhttp://www.jaibangla.wb.gov.in/
JAI BANGLA SCHEME

জয় বাংলা পেনশন স্কিমের সুবিধা

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন প্রকল্পের অনেক সুবিধা রয়েছে যা এই রাজ্যের অর্থমন্ত্রী শ্রী অমিত মিত্র ঘোষণা করেছেন। প্রথমত, পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা স্কিম এ এক-অভিভাবক প্রকল্পের অধীনে দুটি স্কিম চালু করা হবে। যাতে এই রাজ্যের বাসিন্দাদের জন্য দুটি পৃথক স্কিম চালু করা যেতে পারে আর তারা আলাদাভাবে স্কিম গুলির সুবিধাগুলি পেতে পারেন। 

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বাসিন্দাদের যে ইন্সেন্টিভ দেওয়া হবে তার তালিকা নীচে দেওয়া হল:-

  • তফসিলি বন্ধু পেনশন স্কিমে 600 টাকা সমস্ত বেনিফিশিয়ারিকে দেওয়া হবে।
  • জয় জোহর স্কিমে, সমস্ত বেনিফিশিয়ারিকে 1000 টাকা দেওয়া হবে।

জয় বাংলা পেনশন স্কিম এ যোগ্যতার মানদণ্ড

পশ্চিমবঙ্গ পেনশন স্কিমের জন্য যোগ্য হতে আপনাকে নিম্নলিখিত যোগ্যতার মানদণ্ডগুলি অনুসরণ করতে হবে:-

  • আবেদনকারীকে অবশ্যই পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের স্থায়ী বাসিন্দা হতে হবে।
  • আবেদনকারী অবশ্যই বিপিএল ক্যাটাগরির অন্তর্গত হবেন।
  • একজন আবেদনকারীকে অবশ্যই তফসিলি জাতি বা তফসিলি উপজাতি সম্প্রদায়ের অন্তর্ভুক্ত হতে হবে।
  • আবেদনকারীর বয়স 60 বছরের বেশি হবে না
  • আবেদনকারী পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের অন্যান্য পেনশন প্রকল্পের  তালিকাভুক্ত হবেন না।  

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন স্কিমের বৈশিষ্ট্য

  • সুবিধাভোগীরা সরাসরি তাদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সুবিধা পাবেন
  • সরকার শীঘ্রই এই প্রকল্পের জন্য আলাদা পোর্টাল চালু করতে চলেছেন৷
  • রাজ্যের প্রায়  21 লক্ষ মানুষ এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন
  • SC/ST-এর যে কোনো প্রার্থী যিনি বৃদ্ধ/বিধবা/PwD আবেদন করতে পারেন।
  • তবে এই সকল সুবিধা সরকার বাজেট চূড়ান্ত করা অবধি পাওয়া যাবে।  

আবেদনের জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন স্কিমের জন্য আবেদন করার সময় নিম্নলিখিত ডকুমেন্টস গুলো প্রয়োজন: –

  • পাসপোর্ট ফটোগ্রাফ : Passport Photograph
  • জাত শংসাপত্রের অনুলিপি : Copy of Caste Certificate
  • যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে ডিজিটাল শংসাপত্রের অনুলিপি : Copy of Digital Certificate from Appropriate Authority
  • ডিজিটাল রেশন কার্ডের কপি :  Copy of the Digital Ration Card
  • আধার কার্ডের কপি, যদি পাওয়া যায় :Copy of Aadhaar Card, if available
  • ভোটার আইডির কপি : Copy of Voter Id
  • আবাসিক শংসাপত্রের অনুলিপি (স্ব-ঘোষণা) : The Copy of Residential Certificate (Self Declaration)
  • আয়ের শংসাপত্রের অনুলিপি (স্ব-ঘোষণা) : Copy of Income Certificate (Self Declaration)
  • ব্যাঙ্ক পাস বুকের কপি : Copy of Bank Pass Book

বেনেফিসিয়ারির মৃত্যুর ক্ষেত্রে

পশ্চিমবঙ্গের পেনশন প্রকল্পের সুবিধাভোগীর মৃত্যু হলে, সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের কর্তৃপক্ষ নিম্নলিখিত পদ্ধতিগুলি গ্রহণ করবেন :-

  • পেনশনের আবেদনকারীর মৃত্যু হলে, সেই  তথ্য যথাযথভাবে যাচাই করার পর, বিভাগ পেনশন বন্ধের জন্য পদক্ষেপ নেবে।
  • পেনশন প্রাপকের মৃত্যুর ক্ষেত্রে, আবেদনপত্রে নির্দেশিত  নমিনী করা ব্যক্তিকে  বকেয়া প্রাপ্য অর্থ দিয়ে দেওয়া হবে।

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা পেনশন স্কিমের আবেদন প্রক্রিয়া

পশ্চিমবঙ্গ জয় বাংলা স্কিমে আবেদন করার জন্য আপনাকে নিম্নলিখিত আবেদন পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে:-

  • অফিসিয়াল ওয়েবসাইট [http://www.jaibangla.wb.gov.in/]দেখুন
  • হোমপেজে এন্টার করার পর, পশ্চিমবঙ্গ বাংলা পেনশন স্কিম রেজিস্ট্রেশন বিকল্পটিতে ক্লিক করুন
  • আবেদনপত্রটি আপনার স্ক্রিনে দেখা যাবে।
  • আপনি আপনার কাছাকাছি সরকারি অফিস থেকেও এই আবেদনপত্রটি পেতে পারেন।
  • সরাসরি আপনার কম্পিউটারে আবেদনপত্র ডাউনলোড করতে এখানে দেওয়া লিঙ্কে ক্লিক করুন

আবেদন পত্র ফিল আপ করার পদ্ধতি

  • আবেদনপত্রের একটি প্রিন্টআউট নিন এবং এতে বিশদ বিবরণ পূরণ করুন যেমন সুবিধাভোগীর নাম, লিঙ্গ, জন্ম তারিখ, বয়স, পিতার নাম, মায়ের নাম, জাত ইত্যাদি।
  • তারপরে তালিকাভুক্ত নথিগুলি সংযুক্ত করুন

আপনাকে আপনার এলাকা অনুযায়ী আপনার পূরণকৃত আবেদনপত্র নিম্নলিখিত অফিসে জমা দিতে হবে-

  • আবেদনকারী যদি গ্রামীণ এলাকায় বসবাস করেন তাহলে  ব্লক ডেভেলপমেন্ট অফিসার এর কাছে জমা দিতে হবে। 
  • আবেদনকারীর যদি কলকাতা মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের বাইরে পৌর/বিজ্ঞাপিত এলাকায় বসবাস করছেন তাহলে সাব-ডিভিশনাল অফিসার এর কাছে জমা দিতে হবে। 
  • যদি আবেদনকারী কলকাতা পৌর কর্পোরেশনের এলাকায় বসবাস করেন তাহলে কলকাতা পৌর কর্পোরেশন কমিশনার এর কাছে জমা করতে হবে ।

আবেদনপত্র পূরণ করার সময় মনে রাখতে হবে : 

  • শুধুমাত্র ব্লক লেটারে সঠিক বিবরণ সহ আবেদনপত্র পূরণ করতে হবে
  • বাধ্যতামূলক কলামগুলি পূরণ করতে মনে রাখবেন
  • শুধুমাত্র ডকুমেন্টস গুলির একটি স্ব-প্রত্যয়িত (self attested) কপি জমা দিন
  • আবেদনপত্রে পাসপোর্ট সাইজের ছবি লাগাতে হবে

জয় বাংলা পেনশন :সুবিধাভোগীদের নির্বাচন পদ্ধতি

আপনি ফর্ম জমা দেওয়ার পরে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নিম্নলিখিত নির্বাচন পদ্ধতি গ্রহণ করবে:-

  • আবেদনপত্রগুলি বিডিও/এসডিও বা কেএমসির কমিশনার দ্বারা যথাযথভাবে যাচাই করা হবে
  • তারা স্কিমের অধীনে আবেদনকারীদের যোগ্যতা নিশ্চিত করবে।
  • শারীরিকভাবে জমা করা সমস্ত যোগ্য ফর্মগুলি কেএমসির BDO/SDO অথবা কমিশনার দ্বারা ডিজিটাইজড এবং স্টেট পোর্টালে আপলোড করা হবে।
  • BDO এবং SDO রাজ্য পোর্টালের মাধ্যমে জেলা ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে ডিজিটালাইজড ফর্মে যোগ্য ব্যক্তিদের নাম সুপারিশ করবে।
  • জেলা ম্যাজিস্ট্রেট তারপর এটি নোডাল বিভাগে পাঠাবেন।
  • কমিশনার, কেএমসি রাজ্য পোর্টালের মাধ্যমে সরাসরি নোডাল বিভাগে যোগ্য ব্যক্তিদের নাম সুপারিশ করবে।
  • নোডাল বিভাগ পেনশন মঞ্জুর  করবে
  • WBIFMS পোর্টালের মাধ্যমে সরাসরি সুবিধাভোগীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে অর্থপ্রদান করা হবে।
  • পেনশনএর প্রক্রিয়া যাতে নির্বিঘ্ন ভাবে হয় তাই জন্য রাজ্য পোর্টালকে WBIFMS-এর সাথে একত্রীকরণ করা হবে
  • প্রতি মাসের ১ তারিখে পেনশন মঞ্জুর করা হবে।

Leave a Comment